কিভাবে আইনতভাবে ভারতে লিঙ্গ এবং নাম পরিবর্তন করবেন ?

কিছু রূপান্তরকামী বন্ধুর  দ্বারা ভাগ করা কিছু ব্যক্তিগত কাহিনী / অভিজ্ঞতা ব্যতীত, কোন সম্পূর্ণ অনলাইন সংস্থা নেই যা নাম এবং লিঙ্গের আইনী পরিবর্তন প্রক্রিয়ায় আপনাকে সাহায্য করতে পারবে। আমার নিজের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে আমি আপনার কিছু সময় এবং কষ্ট বাঁচাতে এই গাইড সংকলন করেছিI নাম এবং লিঙ্গ আইনি পরিবর্তনের  তিনটি ধাপ। যেমন,

1. একটি হলফনামা বানান 2. সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন প্রকাশ করুন 3. গেজেটে বিজ্ঞপ্তি দিন।

1. একটি হলফনামা বা এফিডেভিট তৈরী করুন — যে কোনো নোটারি থেকে নাম এবং লিঙ্গ পরিবর্তনের জন্য একটি হলফনামা পেতে পারেন। তারা কমবেশী ৩oo টাকা পারিশ্রমিক নেয়। আপনার সুবিধার জন্য একটি নমুনা হলফনামা এখানে দেওয়া হল । ডাউন লোড করার জন্য এখানে চাপুন । 

2. সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন প্রকাশ করুন — আপনার পছন্দের যেকোনো একটি স্থানীয় সংবাদপত্র বেছে নিন এবং একটি বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য লিফলেটের একটি অনুলিপি জমা দিন। আপনি সহজেই এটি অনলাইনে করতে পারেন, আপনার বাড়ির আরামে বসে  http://www.releasemyad.com | আপনি যদি এটা বুদ্ধিমানভাবে করতে চান তবে এমন একটি সংবাদপত্র নির্বাচন করুন যা কম জনপ্রিয় এবং এতে আপনার কিছু  টাকাও বাঁচবে। বিজ্ঞাপন দিতে ৩oo থেকে ৫oo টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে। বিজ্ঞাপনটি কেমন দেখায় তা সম্পর্কে একটি ধারণা দিতে আমি এখানে একটি টেমপ্লেট বা কাঠামো সংযুক্ত করেছি| এখানে ক্লিক করুন ।

3. গেজেটে অবহিত করুন — চূড়ান্ত প্রক্রিয়াটি গেজেটে নাম এবং লিঙ্গ পরিবর্তন। গেজেট সরকারের একটি পত্রিকার মত। রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারগুলির নিজস্ব গেজেট রয়েছে। আপনি যে কোনো একটি গেজেটে জানাতে পারেন, তবে অনেক সরকারি / আধা-সরকারি প্রতিষ্ঠান ভারতের গেজেটে বিজ্ঞপ্তি দেওয়াকেই শ্রেয় মনে করে । ব্যক্তিগত  বিজ্ঞাপন এবং পাবলিক নোটিশগুলি সাধারণত ভারতের গেজেটের চতুর্থ পাটে প্রকাশ করা হয়। আমি ভারতের গেজেটে লিঙ্গ ও নাম পরিবর্তনের  প্রক্রিয়াটি বর্ণনা করব। আপনারা যারা জানেন না তাদের জন্য বলছি, লিঙ্গ পরিবর্তন করার জন্য অস্ত্রোপাচার / হরমোন চিকিৎসার প্রয়োজন নেই, সুপ্রিম কোর্টের NALSA বিচার অনুযায়ী। গেজেট বিজ্ঞপ্তির জন্য নিম্নলিখিত ফর্মগুলি / নথিগুলি জমা দিতে হয়।

১) প্রথম ধাপের নাম এবং লিঙ্গ পরিবর্তনের নোটোরাইজড হলফনামার কপি |
২)আবেদনকারীর দ্বারা স্বাক্ষরিত একটি উদ্যোগ
৩) মূল সংবাদপত্র
৪)প্রামাণিকভাবে টাইপ করা ডুপ্লিকেটের প্রফরমায় আবেদনকারীর স্বাক্ষর এবং দুই সাক্ষীর  স্বাক্ষর | এখানে ক্লিক করুন |
৫) একটি CD যাতে থাকবে MS ওয়ার্ডের একটি ডকুমেন্ট যাতে থাকবে সাক্ষীর অংশটুকু ছাড়া প্রিন্টিং এর বিষয় এবং নিজের স্বাক্ষরের পরিবর্তে  নিজের নাম। এখানে ক্লিক করুন |
৬) দুটি স্ব-স্বাক্ষরিত পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং আইডি প্রমাণপত্রের একটি স্ব-স্বাক্ষরিত ফটোকপি।
৭) আবেদনকারীর দ্বারা স্বাক্ষরিত একটি সার্টিফিকেট যা ঘোষণা করে যে  অনুলিপি ও CD ডকুমেন্টের  বিষয়বস্তু একই। এখানে ক্লিক করুন |
৮) অনুরোধ পত্রের সঙ্গে  প্রয়োজনীয় ফি (১৪০০ টাকা যদি ব্যক্তিগতভাবে নিজে গিয়ে জমা দেন বা ডিমান্ড ড্রাফ্টের মাধ্যমে জমা দেওয়া হলে তবে তা “দিল্লির নিয়ন্ত্রক” বা “Controller of Delhi” এর নামে বানাতে  হবে এবং তা পোস্ট / কুরিয়ার মাধ্যমে পাঠাতে হবে ) এখানে ক্লিক করুন |
৯) মেডিক্যাল ডকুমেন্টের স্বস্বাক্ষরিত ফটোকপি (GD সার্টিফিকেট বা এসআরএস SRS সার্টিফিকেট)
১০) SRS যারা করেছেন (যদিও বাধ্যতামূলক নয়) তাদের জন্য লিঙ্গ পরিবর্তন সম্পর্কিত নমুনা প্রফরমা এখানে যুক্ত করছি | এখানে ক্লিক করুন |

আপনি দস্তাবেজ নিজে গিয়ে  জমা দিতে পারেন অথবা পোস্ট / কুরিয়ারের  মাধ্যমে তাদের পাঠাতে পারেন।  কুরিয়ার বা পোস্টের পরিবর্তে ব্যক্তিগতভাবে তাদের জমা ( কম সময় লাগে)  দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয় কারণ কোনও সমস্যা হলে অফিস আপনার টেলিফোন খুব কমই  গ্রহণ করে। এছাড়াও, পোস্ট / কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠানো আবেদনগুলিকে প্রক্রিয়াভুক্ত করার জন্য কমপক্ষে ২ মাস সময় লাগে। গেজেটটি সাধারণত প্রতি শনিবার প্রকাশিত হয় এবং এই ওয়েবসাইটটি  egazette.nic.in থেকে ডাউনলোড করা যায়|

ভারতের গেজেটের ব্যাপারে আরও তথ্যের জন্য, দয়া করে deptpub.nic.in এই অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি দেখুন।

ওপরের  তিনটি প্রক্রিয়া ( হলফনামা ,  সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন এবং গেজেটে বিজ্ঞপ্তি )  সম্পন্ন করার পর , আপনি প্যান, আধার, ভোটার কার্ড, আপনার কোম্পানির আইডি ইত্যাদির মতো অন্যান্য আইডি পরিবর্তন করতে পারেন।

এমনকি এই গেজেট বিজ্ঞপ্তির উপর ভিত্তি করে শিক্ষাগত সার্টিফিকেটও পরিবর্তন করা যায়। কর্ণাটকের বিশ্বেশ্বরায়া টেকনোলজিকাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রদত্ত ডিগ্রি সার্টিফিকেটের জন্য, আপনি বিশ্বেশ্বরায়া টেকনোলজিকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম সংশোধন ফর্মের মাধ্যমে গেজেটের ভিত্তিতে নাম এবং লিঙ্গ পরিবর্তনের জন্য আবেদন করতে পারেন। আপনাকে অনলাইনে উপযুক্ত ফি প্রদান করতে হবে এবং পূরণ করা আবেদনটি আপনার কলেজের মাধ্যমে বিশ্বেশ্বরায়া টেকনোলজিকাল বিশ্ববিদ্যালয়কে পাঠাতে হবে।

পুনশ্চ: —  ভারতের গেজেটে কৃতিকা সিং এর (ট্রান্সজেন্ডার ইন্ডিয়ার সদস্য ) ২ বছরের দীর্ঘ মেয়াদী  যুদ্ধের ফলে  এখন ভারতে রূপান্তরকামীরা  আইনতভাবে লিঙ্গ ও নাম সার্জারি বা হরমোন  চিকিৎসা ছাড়াই পরিবর্তন করতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here